আগামী ২৯ শে মার্চ অনুষ্ঠিত হবে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। বাংলাদেশের অন্যতম বৃহত্তর এই সিটি নির্বান এবার বেশ প্রতিদ্বন্দিতা পূর্ন হতে যাচ্ছে। এবারের নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে রেজাউল করিমকে। আর মনোনয়ন বঞ্চিত করা হয়েছে বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছিরকে। তবে এবার এই মনোয়নয় প্রক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মেয়র নাছির। তিনি এ বিষয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন এই মনোনয়ন প্রক্রিয়াতে এবার চট্টগ্রামের কেউ সম্পৃক্ত ছিল না। এ সময় তিনি কাউন্সিলরদের মনোনয়ন নিয়েও বেশ প্রশ্ন তোলেন। সোমবার (২ মার্চ) দুপুরে নগরীর রিমা কমিউনিটি সেন্টারে যুবলীগের চট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় মেয়র এসব প্রশ্ন রাখেন।


মেয়র নাছির বলেন, ’আমার কাছে প্রশ্ন করেছে অনেকে, আমাদের প্রানপ্রিয় নেতা নৌকা প্রতীকের মনোনীত জনাব রেজাউল করিমের কাছে প্রশ্ন করেছেন অনেকে। এই প্রার্থীগুলো কিভাবে মনোনয়ন পেলেন। আসলে আমরা কোন কিছু জানিনা।’

কারা এই মনোনয়ন দিয়েছে সেই প্রশ্ন তুলে তিনি বলেন, ’আমরা বলি আপনারা জানেন? এসব কাউন্সিলর প্রার্থীকে কারা মনোনয়ন দিয়েছে এটা কি আমরা জানি? আমাদের জানামতে চট্টগ্রামের কেউ এই মনোনয়ন প্রক্রিয়ার সাথে জড়িত নই। আজকে তাহলে কারা এদেরকে নির্বাচন করেছে? তারা কারা? তারা কি জেনে শুনে করেছে? তারা জেনে শুনে করেননি।’তিনি আরও বলেন, ’নিজের স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য তারা কাজটি করেছেন। বিগত দিনে তাদের কি কর্মকাণ্ড ছিল? এখনো তাদের ব্যাপারে শঙ্কিত। তারা কিভাবে মনোনয়ন পেলেন।’



যুবলীগের বিভাগীয় সভায় আ জ ম নাছির উদ্দিন আবার বলেন, ’এই কথাগুলো আমি বলতে চাই না। আমি যদি কথা বলি তাহলে এই কথার সূত্র ধরে অনেকে হয়তো অনেক কথা বলার চেষ্টা করবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মনোনয়ন বোর্ড যে মনোনয়ন প্রদান করেছে সেটাই আমার কাছে শিরোধার্য। সেটা নিয়ে আমি কাজ করেছি এবং কাজ করবো। কাজ করেই আমি প্রমান করে দিব মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আমি শতভাগ অনুগত। আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। একদিনে আওয়ামী লীগে আসিনি।’

এদিকে সোমবার দুপুর ১২ টায় রিমা কমিউনিটি সেন্টারে চট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রতিনিধি সমাবেশের কার্যক্রম শুরু হয়। প্রতিনিধি সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে সামস পরশ। স্বাগত বক্তব্যে পরশ বলেন, ’যুবলীগের ঐতিহ্য রয়েছে। নানা কারণে যুবলীগের ইমেজ ক্রাইসিস তৈরি হয়েছিল। জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাদের দায়িত্ব দিয়েছেন। আমরা কাজ করছি যুবলীগকে একটি সুশৃঙ্খল সংগঠন হিসেবে তৈরি করতে’। এসময় চসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীর পক্ষে যুবলীগ নেতাকর্মীদের কাজ করার আহ্বান জানান তিনি। নির্বাচন পরিচালনার জন্য যুবলীগের পক্ষ থেকে কমিটি করে দেওয়া হবে বলেও জানান পরশ।

যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হাসান খান নিখিলের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএ সালাম, সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান আতা, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান। বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় ১৫টি সাংগঠনিক জেলা ও তার আওতাধীন বিভিন্ন ইউনিটের প্রায় ৫০০ প্রতিনিধি অংশ নিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ঢাকা সিটি নির্বাচনের মত এবার চট্টগ্রাম নির্বাচনেও শুরতে বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছিল। আর এই চাঞ্চল্য সৃষ্টির বিষয়টি হলো বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছিরকে মনোনয়নয় বঞ্চিত করা হয় এবারের নির্বাচন থেকে। আর এটা বেশ একটা বড় মাপের ধাক্কা তার জন্য। যদিও চট্টগ্রামের মেয়র থাকাকালিন সময় তার পারফরম্যান্স খুব একটা ভালো ছিল না। ৫ বছর ধরেও তিনি পারেননি চট্টগ্রামের জলাবদ্ধতা নিরসন করতে। এ ছাড়াও আরো অনেক বহুবিধ কারনে তাকে এবার দলের মনোনয়ন বঞ্চিত করা হয়।