গেল বেশ কয়েকদিন ধরেই বাংলাদেশের সামাজিক যোগাযোগ মধ্যেম ফেসবুকের ওয়ালে ওয়ালে একটি ভিডিও ঘুরে বেড়াচ্ছে। আর সেই ভিডিওটিতে দেখা যায় এক মা এবং তার মেয়ের বাঁচার আকুতি। আর এ নিয়ে বেশ তোলপাড় সৃষ্টি হয়। জানা যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মা-মেয়ের বাঁচার আ’/কু’/তির লাইভের জের ধরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পুলিশ হাজির হয় ধানমন্ডির মধুবাজারের স্বপ্ননীল ভবনের ৮ম তলার ফ্ল্যাটে। ওই ফ্ল্যাটে বসবাসরত শাহিদা বেগম ফেসবুক লাইভে তার স্বামীর বিরুদ্ধে নি’/র্যা’/ত’/ন চালানোর অভিযোগ তোলেন। শাহিদার মেয়েও তার বাবার বিরুদ্ধে একই অভিযোগ করেন।
পুলিশের ধানমন্ডি জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার আব্দুল্লাহ হেল কাফী ঢাকা জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট পাঠান মো. সাইদুজ্জামানকে সঙ্গে নিয়ে ওই ফ্ল্যাটে অভিযান চালান। প্রথম ফ্ল্যাটের দরজা খুলতে না চাইলে পুলিশ দরজা ভেঙ্গে ফেলে। পরে আরেকটি কক্ষের দরজা ভেঙ্গে পুলিশ দেখতে পায় যে বিছানার ওপর শাহিদা বেগম বসে রয়েছেন। সময় টিভি, ইত্তেফাক

শাহিদা বেগম জানান, তার স্বামীর ওপর প্রতিশোধ নিতে তিনি ফেসবুকে লাইভে মিথ্যা আকুতি জানিয়েছেন। পুরো ঘটনাটি ছিল সাজানো। আবার মেয়ে জানিয়েছেন, তার বাবা-মার মধ্যে ডিভোর্স হলেও তারা একসাথে থাকেন।

এ দিকে এই ঘটনাটি নিয়ে ইতিমধ্যে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশের বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে যে, ঐ নারী এবং তার স্বামী উভয়ের মধ্য বেশ একটা অসুস্থতার বিষয় রয়েছে। কারন ঐ নারী শুরুতে পু’/লিশকে জানায় তার স্বামী তাকে নি’/র্যা’/তন করে। এ দিকে তার স্বামীকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে তার স্বামী জানায় তাকে নি’/র্যা’/তন করে তার স্ত্রী। এ দিকে এ সব শুনে অতিরিক্ত উপ- কমিশনার আব্দুল্লাহ হেল কাফী বলেন উভয়ের কথা শুনে মনে হয়েছে, তাদের মধ্যে শারিরীক ও মানসিক সমস্যা রয়েছে।