বাংলাদেশের সূবর্ণজয়ন্তী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ১০১ তম জন্মবার্ষিকী। আর এ নিয়ে এখন সারা দেশে বিশেষ করে রাজধানীতে চলছে সাজ সাজ রব। আর এই কারনে কয়েকদিন ধরে ব্যস্ত থাকবে পুরো রাজধানী। যার ফলে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে বার বার রাজধানীবাসিকে দেয়া হচ্ছে নির্দেশনা।
রাজধানীর মেট্রোপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কমিশনার ও সিটিটিসির প্রধান মো. মনিরুল ইসলাম আজ রোববার (১৪ মার্চ) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের হেডকোয়ার্টার্স আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ১৭ মার্চ থেকে ২৫ মার্চ পর্যন্ত ৫ টি দেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ভিভিআইপি মুভমেন্টের জন্য নগরবাসীকে কিছুটা ভো’গান্তি পো’হাতে হতে পারে। যে কারণে নাগরিকদের নির্দিষ্ট সময়ের আগে বাসা থেকে বের হওয়ার আহ্বান করছি।

এছাড়াও আজ মনিরুল ইসলাম পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন।

উক্ত মেট্রোপলিটন পুলিশের হেডকোয়ার্টার্স আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনটি আয়োজন করা হয় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর উদ্বোধন উপলক্ষে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান ও সরকার প্রধানগণের আগমন উপলক্ষে নি’রাপত্তা ব্যবস্থার বিষয়ে।

মনিরুল ইসলাম বলেন, ভিআইপিদের এ মুভমেন্ট এর সময় কোন রাজনৈতিক দলের কর্মসূচি না দেওয়ার অনুরোধ করছি। যদি কোনো রাজনৈতিক দল এসব কথা না মানেন তাহলে আমরা তাদেরকে রা’ষ্ট্রবি’রোধী হিসেবে বিবেচনা করবো এবং উ’পযুক্ত ব্যা’বস্থা গ্রহন করা হবে।

তিনি আরও বলেন, ভিআইপিদের চলাফেরার সময় প্রতিটা নাগরিকদের নির্দিষ্ট সময়ের আগে তাদের গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওনা হবার আহ্বান জানাচ্ছি। যাতে রাজধানীর রাস্তা গুলোয় কোন বি’শৃঙ্খলা সৃষ্টি নয়।

সিটিটিসিতে আপনার ব্যর্থতা এবং সফলতার কথা সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, সিটিটিসিতে সফলতার ক্রেডিট আমার সহকর্মীদের এবং ব্য’র্থতার দায় শুধুমাত্র আমার।

এ দিকে এই দুই বিশেষ উপলক্ষ্যে ইতিমধ্যে বাংলাদেশে এসেছে দক্ষিন এশিয়ার বেশ কয়েকটি দেশের রাষ্ট্র প্রধানরা। আর সামনে আসতে চলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদিও। যার ফলে ব্যস্থ থাকছে পুরো রাজধানী।