বাংলাদেশ ফ্লিম ক্লাব নিয়ে এবার নতুন করে আবারো গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। আর এই অভিযোগটি তুলেছেন বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় সিনেমা প্রযোজক ইকবাল। বাংলাদেশ ফিল্ম ক্লাব লিমিটেডের অফিসে জু’য়া খেলা হচ্ছে বলে দাবি করেছেন ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও চলচ্চিত্র প্রযোজক মোহাম্মদ ইকবাল। সোমবার (২২ মার্চ) নিজের ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় এ দাবি করেন তিনি। এ সময় ক্লাবের বর্তমান সভাপতি ওমর সানীর করা সাধারণ ডায়েরি নিয়েও কথা বলেন ইকবাল।
ভিডিওতে ইকবাল বলেন, ’ফিল্ম ক্লাবে কী হচ্ছে? তা আপনারা অনেকেই জানেন না। ক্লাবটি ব্যবহার করছে সদস্যদের মধ্যে ১০ থেকে ১৫ জন। অথচ এই ক্লাবে ২২ দিনে ২ লাখ ২১ হাজার টাকা আপ্যয়ন খরচ। এটি আমার কথা না, ক্লাবে কার্যনির্বাহী সদস্যদের কথা। এটি নিয়ে ইসি মিটিংয়ে তারা আপত্তিও করেছে।’

তিনি আরো বলেন, ’ফিল্ম ক্লাবে ছোট্ট একটি রুমে ফিঙ্গার দিয়ে ঢুকতে হয়। সে ফিঙ্গার আমারও নাই, অথচ আমি দুইবার ক্লাবের ইনচার্জ ছিলাম। সেখানে অ’বৈ’’ধ’/ভাবে লাখ লাখ টাকার জুয়া খেলছে বাইরের লোক। শুধু এটা না, আরেক জায়গায় বোর্ড ভাড়া দিয়েছে। সেখানেও জুয়া খেলছে বাইরের লোকেরা। এই অবৈধ কাজের প্রতিবাদ করায় ওমর সানী আমার নামে গুলশান থানায় জিডি করেছে। আমি বারবার বলছি, আমাকে সাসপেন্ড করলেও আমি এই অন্যায় কাজকে সাপোর্ট দিব না। আমি বারবার বলেছি, যারা ছিল তারা শুনেছে।’

ওমর সানীর করা সাধারণ ডায়েরির (জিডি) কপি হাতে পেয়েছে সময় সংবাদ। গুলশান থানায় হাজির হয়ে এটি করেছেন ওমর সানী। যার নম্বর ১৪০৬। সেখানে ফিল্ম ক্লাবের বর্তমান সভাপতি ওমর সানী উল্লেখ করেন, রোববার (২১ মার্চ) রাত ১০টার দিকে ক্লাবের সদস্য ইকবাল সামান্য নাস্তা নিয়ে ক্লাব কর্মচারীর সাথে অপ্রীতিকর ঘটনা শুরু করে। আমাকে গালাগাল এবং জীবন নাশের হুমকি দেয়।

জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গুলশান থানার উপ-পরিদর্শক অমিত। সময় সংবাদকে তিনি বলেন, গতকাল (২১ মার্চ) জিডি হয়েছে। কিন্তু এখনো কপি হাতে পাইনি। কপি হাতে পেলে আপডেট জানাতে পারব।

এদিকে, ওমর সানী তার জিডিতে যা উল্লেখ করেছেন তা মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন বলে জানান ইকবাল। তবে ওমর সানী সময় সংবাদকে বলেন, ’ইকবাল ভিডিওতে যে দাবি করেছে সেটি মিথ্যা। ও সেদিন ক্লাবে যে আচরণ করেছে তার প্রমাণ, ভিডিও আছে আমাদের কাছে। আমার ক্লাবের সদস্যরা সাক্ষী হিসেবে আছে।’

বাংলাদেশে বেশ কিছু জনপ্রিয় সিনেমার সফল প্রযোজক তিনি। বিশেষ করে শাকিব খানের বেশ কিছু সিনেমায় প্রযোজনা করে নাম কামিয়েছেন বেশ।’শুটার’, ’পাসওয়ার্ড’, ’বীর’সহ বেশ কিছু সিনেমা প্রযোজনা করেছেন তিনি। ইকবাল ফিল্ম ক্লাবের আজীবন সদস্য। অন্যদিকে, ফিল্ম ক্লাবের ২০২১ সালের নির্বাচনে সভাপতি পদে জয়ী হয়েছেন ওমর সানী।