যৌতুক একটি সামাজিক ব্যাধি। আর এই সামাজিক ব্যাধি বাংলাদেশে একটা সময়ে অহরহ থাকলেও এর প্রবণতা এখন অনেকটাই কম। তবে মিলিয়ে যায়নি এখনো সমাজ থেকে। যার প্রমান মেলে মাঝে মধ্যেই। সম্প্রতি এমন একটি ঘটনা ঘটেছে আবারো। ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে বিয়ের মাত্র আট দিনেই যৌতুকের জন্য নি’’’র্যা’’’ত’’’নের স্বীকার হয়ে হা’’’সপাতালে ভর্তি রয়েছেন এক নববধূ। বুধবার দুপুরে এ ঘটনাটি ঘটে উপজেলা আঠারবাড়ী ইউনিয়নের তেলুয়ারী গ্রামে। হাসপাতালে চি’’’কিৎসাধীন নি’’’র্যা’’’তিতা নববধূ জানান, উপজেলা আঠারবাড়ী ইউনিয়নের তেলুয়ারী গ্রামের আলী আকবরের পুত্র শফিকুল ইসলামের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।
পরে গত ১৭ আগস্ট ২০১ এ ৩ লাখ টাকা দেনমোহরে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের ৪ দিন পর গৃহবধূ স্বামীর বাড়ি থেকে সরিষা ইউনিয়নের এনায়েতনগরে তার বাবার বাড়ি বেড়াতে আসেন। তিনি জানান, বুধবার দুপুরে বোনকে সঙ্গে নিয়ে বাবার বাড়ি থেকে শ্বশুরবাড়ি গেলে স্বামীর বড়বোন তহুরা, কুলসুম ও চাচাতো ভাই শহিদ মিয়া ঘরে উঠতে বাধা দেন।

ঘরে উঠতে বাধা দেবার সাথে সাথে তারা দাবি জানান, ঘরে উঠতে হলে দিতে হবে ৫ লাখ টাকা। এরপর একটা পর্যায়ে সেই গৃহবধুকরে করা হয় মার’ধ’র’। আর সেই সময়ই ৯৯৯ এ ফোন করে পুলিশকে অবহিত করা হয়। এরপর পুলিশ সেই গৃহবধুকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ব্যাপারে আঠারবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই রফিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আহত অ’’’বস্থায় গৃহবধূকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।এরপরে ব্যবস্থা নেয়া হবে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে।