বাংলাদেশের ছোট পর্দার অন্যতম জনপ্রিয় বন্ধুত্ব জুটির নাম একটা সময়ে ছিলন শাওন-টয়ার দখলে। আর সেই বন্ধুত্বটাকেই তারা পরিনিত করে ভালোবাসায় এর পরে চলে যায় প্রণয়ে। তাদের বন্ধুত্ব শুরু হয় দুজন এক সাথে অভিনয় করতে গিয়ে। এরপর ২০১৯ সালের শেষের দিকে ভারতে একটি অভিনয় প্রশিক্ষণ কর্মশালাতে একসঙ্গে অংশ নিতে গেলে তাদের বন্ধুত্ব আরো গাঢ় হয়।
একপর্যায়ে একে অপরকে জীবনসঙ্গী হিসেবে ভাবতে শুরু করেন শাওন ও টয়া। যেই ভাবনা সেই কাজ। চলতি বছরের জানুয়ারিতে তাদের বাগদান হয়। এরপর ফেব্রয়ারিতে বিয়ে। বর্তমানে এক ছাদের নিচে বসবাস করছেন জনপ্রিয় এই জুটি।

শাওন-টয়া জুটি বেঁধে এ পর্যন্ত বেশ কিছু দর্শকপ্রিয় নাটক উপহার দিয়েছেন। কিন্তু তারা জানিয়েছেন, তাদের দুজনকে আর একসঙ্গে পর্দায় দেখা যাবে না। হঠাৎ এমন কি এমন হল যে তারা একসঙ্গে কাজ না করার সিন্ধান্ত নিলেন? তবে কি টোনাটুনির সংসারে কেউ পেরাক ঢুকিয়েছে! না, এমনটা নয়। দর্শকের কথা চিন্তা করেই তাদের এমন সিদ্ধান্ত।

এই কথা জানিয়েছেন অভিনেতা শাওন নিজেই। তিনি বলেন, ’সবার দোয়ায় নতুন জীবন বেশ ভালো ভাবেই চলছে। দুজনের মধ্যে বোঝাপড়াটা অনেক ভালো। বন্ধুত্বের খু’/ন’/সু’/টি সবই আছে। তবে আমাদের দুজনকে আর একসঙ্গে পর্দায় দেখা যাবে না।’

কারণ হিসেবে শাওন জানান, ’দর্শক আমাদের কাজগুলো চমৎকার ভাবে গ্রহণ করেছেন। তাই তাদের কথা চিন্তা করে আমাদের জুটি নষ্ট করতে চাই না। কাজ কম করে দর্শককে ভালো নাটক উপহার দিতে চাই। মানহীন কাজ করতে আগ্রহী নই। এ জন্য ভালো গল্প এবং চরিত্র পেলে তবেই দুজনে একসঙ্গে কাজ করব।’

এ দিকে স্যোশাল মিডিয়ায় বেশ একটিভ থাকেন টয়া। প্রতিনিয়তই এই জনপ্রিয় দম্পতি জুটির নানা ধরনের খু’/ন’/শু’/টি দেখা যায়। বিশেষ করে টয়া তাদের নানা ধরনের ভালোবাসার মুহুর্তগুলো তার ভক্তেদের জন্য দেখিয়ে থাকেন। তবে তাদের নেয়া এই নতুন সিদ্ধান্তটি কেমন ভাবে নিবেন তাদের ভক্তরা তাই এখন দেখার বিষয়।