বাংলাদেশের সিনেমার ইতিহাসের সব থেকে বড় তারকা অভিনেত্রীর নাম ববিতা। সিনেমার জগতে সর্বকালের সেরা তকমাটা এখনো তার দখলে। বছরের দীর্ঘ সময়টা বাংলাদেশেই থেকে থাকেন তিনি। তবে গেল দুই মাস ধরে কানাডায় ছেলের কাছে রয়েছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ববিতা। সেখানে ছেলে অনিকের সাথে তার বেশ ভালো সময় কাটছে। করোনার কারণে দীর্ঘদিন ধরে ছেলের কাছে যেতে পারেননি তিনি। এ নিয়ে তিনি দেশে খুবই বিষন্ন সময় কাটিয়েছেন।
করোনার মধ্যে ভিসা জটিলতাও ছিল। অবশেষে সব জটিলতা কাটিয়ে তিনি কানাডা যেতে সক্ষম হন। সেখানে কেমন আছেন এমন প্রশ্নের জবাবে ববিতা বলেন, খুবই ভালো সময় কাটছে। আমার পৃথিবী আমার ছেলে। ওকে ছাড়া আর কিছু নিয়ে ভাবি না। দীর্ঘদিন ওর কাছ থেকে দূরে থাকায় মন খুব খারাপ হয়েছিল। এখন ছেলের কাছে আসতে পেরে সব দুঃখ কেটে গেছে।

অনিকের দেখাশোনা এবং তাকে নিয়ে ঘুরতে বের হই। মা-ছেলের সময় খুব ভাল কাটছে। তিনি বলেন, ছেলেকে রান্না করে খাওয়াতে পারছি, এর চেয়ে সুখ আর কিছু নেই। ঢাকায় জেলখানার মতো বন্দি ছিলাম। সবসময় মন খারাপ থাকতো। এখন অনিক আমাকে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে নিয়ে যায়। ববিতা বলেন, এখন আমি আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করি।

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় পড়ি। তাহাজ্জুতের নামাজও বাদ দেই না। সবমিলিয়ে দারুণ সময় কাটছে। তিনি বলেন, আগামী মাসে আমেরিকায় আমার ভাইয়ের কাছে যাবো।

সেখানে কিছুদিন সময় কাটিয়ে আবার কানাডায় ফিরবো। এদিকে, বিশ্বনন্দিত চলচ্চিত্র পরিচালক সত্যজিৎ রায়ের ১০০ বছর জন্মবার্ষিকীতে ’অপরাজিত সত্যজিৎ’ শিরোনামের একটি বই সম্প্রতি কলকাতা থেকে প্রকাশিত হয়েছে। আটটি দেশের ৫৫ জনের লেখা রয়েছে বইটিতে।

এর ভূমিকা লিখেছেন ভারতের প্রখ্যাত অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর। ববিতার একটি লেখাও বইটিতে স্থান পেয়েছে। ববিতা বলেন, এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ বইয়ে আমার লেখা ঠাঁই পেয়েছে, এটা আমার জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয়। ধন্যবাদ জানাই বইটি প্রকাশের সাথে জড়িত সবাইকে।

প্রসঙ্গত, বর্তমান সময়টা নিজের মত করেই কাটান ববিতা। সিনেমা থেকে অবসর নিয়েছে প্রায় ১ দশকের মত সময় আগে। আর সেই থেকেই নিজের মত করে জীবন গুছিয়ে নিয়েছেন তিনি। বিশেষ করে ছেলেকে নিয়েই সুখে আছেন তিনি।