সিলেটের জঙ্গি আস্তানা ’আতিয়া মহলে’ সেনাবাহিনি এবং পুলিশের অভিযানের মধ্যেই যেভাবে গেরিলা কায়দায় বোমা হামলা চালিয়ে এক পুলিশ ইন্সপেক্টরসহ তিনজনকে হত্যা করা হয়েছে তার প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের ক্যামেরাম্যান শুভ্র দাশ রাজন।
শনিবার সন্ধ্যায় এবং রাতে দুই দফায় এই হামলা চালানো হয়।
প্রথম হামলাটির প্রত্যক্ষদর্শী ক্যামেরাম্যান শুভ্র দাশ রাজন।তিনি জানান, বিকেল পাঁচটা বা সাড়ে পাঁচটার দিকে সেনাবাহিনির এক কর্মকর্তা এসে জানান, তারা জঙ্গি বিরোধী যে অভিযান চলছে, সেটি নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিং দেবেন।
"পাঠানপাড়ায় এক বাড়িতে আমাদের প্রেস কনফারেন্সের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়। আমরা সাংবাদিকরা সেখানে যাই।
ব্রিফিং শেষে যখন আমরা ফিরছিলাম, ফেরার পথেই তিরিশ থেকে ৪৫ সেকেন্ডের মধ্যে আমরা দূরে একটি বিস্ফোরণের শব্দ শুনলাম। যেখানে বিস্ফোরণ হয়েছে সেখান থেকে আমি বড় জোর ৫০/৬০ গজ দূরে ছিলাম। "
তিনি জানান, এটি ছিল এক ভয়ংকর বিস্ফোরণ। বিকট শব্দে এই বিস্ফোরণ ঘটে।"যখন আগাচ্ছি, তখন দেখছি আমার সামনে শুধু রক্ত।
দুই তিন জন লোক আমার সামনে পড়ে আছে। পুরো শরীর তাদের রক্তে ভিজে গেছে। তারা ইশারা করছে তাদের বাঁচানোর জন্য। "
এরপর সেখানে অ্যাম্বুলেন্স আসে। আহতদের নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। "আমি আর সেখানে এক সেকেন্ডও দাঁড়াইনি। সেখান থেকেই ফিরে আসি। "
শুভ্র দাশ রাজন জানান, পরে তিনি জেনেছেন, মোটর সাইকেলে করে এসে এই হামলা চালানো হয়।
সূত্র:বিডিমর্নিং