মুকেশ আম্বানি বিশ্বের অন্যতম ধনাঢ্য একজন ব্যক্তির নাম। বিশেষ করে এশিয়া মহাদেশে তিনিই সব থেকে বড় ধনি ব্যক্তি। তবে তার থেকে এই শীর্ষ হবার মুকুটটা কেড়ে নিয়েছিলেন চীনের ব্যবসায়ী ঝং শানশান। কিন্তু আবারো তিনি ফিরে পেয়েছেন তার হারানো মুকুট। জানা গেছে চীনের ব্যবসায়ী ঝং শানশানকে হারিয়ে নিজের হারানো মুকুট এশিয়ার শীর্ষ ধনীর তকমা ফিরে পেয়েছেন ভারতের ধনকুবের মুকেশ আম্বানি।শুক্রবার ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার্স ইনডেক্সের হিসাবে এ তথ্য উঠে এসেছে।
ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির তথ্যানুযায়ী, বাজারে আম্বানির রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড (আরআইএল) ভয়াবহ পতনের একটি সপ্তাহ পার হয়েছিল। তবে আরআইএল এর পক্ষ থেকে বলা হয়, তাদের তেল থেকে রাসায়নিকের প্রতিটি ইউনিট এককভাবে ঊর্ধ্বমুখী ছিল।

ব্লুমবার্গ জানায়, আম্বানির বর্তমান সম্পদের পরিমাণ ৮০ বিলিয়ন ডলার। আর তার গতকাল পর্যন্ত যিনি এশিয়ার শীর্ষ ধনী ছিলেন তার বর্তমান সম্পদের পরিমাণ ৭৬ দশমিক ৬ বিলিয়ন ডলার।

এনডিটিভির তথ্যানুযায়ী, গত দুই বছর আলিবাবা গ্রুপ হোল্ডিংস লিমিটেডের জ্যাকমাকে টপকে শীর্ষ ধনীর স্থান দখল করে রাখেন মুকেশ আম্বানি। এরপর ২০২০ সালের ডিসেম্বরে চীনের জং শানশানের কাছে তিনি শীর্ষ পদ হারান। ঝং এশিয়ার শীর্ষ ধনীর পদ দখলের পাশাপাশি ২০২১ সালের প্রথমদিকে বিশ্বের ষষ্ঠ ধনী ব্যক্তিতে পরিণত হন। এমনকি ওয়ারেন বাফেটকেও পেছনে ফেলে দেন।


ভারতের সব সময়ের শীর্ষ ধনির তালিকায় তিনি থাকেন সবার উপরেই। আর এই ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছেন দীর্ঘ কয়েকবছর ধরেই। তবে গেল বছরে তার সেই মুকুট ছিনিয়ে নিয়েছিলেন চীনের সেই পানি ব্যবসায়ী। তবে চলতি সপ্তাহে চীন এবং হংকংয়ের শেয়ারবাজারে পতন শুরু হলে ঝংয়ের কোম্পানি নংফু চলতি বছরের মুনাফা পায়নি। আবার তার আরেকটি কোম্পানি ওয়ানতাইও মুনাফা থেকে বঞ্চিত হয়েছে। ফলে লাভবান আম্বানি এশিয়ার শীর্ষে উঠে আসে।