লোকসভা নির্বাচন হচ্ছে ভারতে। এই ভোটের মৌসুমে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অন্যতম প্রধান বিরোধী হয়ে উঠেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জনসভা থেকে বারবার একে অপরকে আক্রমণ করে যাচ্ছেন দু’জনেই। তবে এবার মমতার বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন বিজেপির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নেত্রী এবং কেন্দ্রীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। মমতাকে আক্রমণ করে সুষমা বলেন, আপনি সব সীমা পার করেছেন।
ভোটপ্রচারে প্রায় প্রতিদিনই ময়দানে নামছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। আর নিত্যনতুন ভাষায় বিজেপি তথা প্রধানমন্ত্রী মোদিকে আক্রমণ করছেন তিনি। তবে মঙ্গলবার মোদিকে জোরালো আক্রমণ করেন তিনি।
মোদিকে গণতন্ত্রের থাপ্পড় দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তৃণমূলের এই নেত্রী। মিথ্যাবাদী প্রধানমন্ত্রী বলেও খোঁচা দেন তিনি। পশ্চিমবঙ্গে এসে বারবার তৃণমূলের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন মোদি। এর জবাবেই তাকে আক্রমণ করেছেন মমতা।
এদিকে, এক টুইট বার্তায় মমতাকে কড়া জবাব দিয়েছেন কেন্দ্রীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। সম্প্রতি এভাবে মমতাকে আক্রমণ করার নজির নেই সুষমার। তবে এবার তিনিও বেশ কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন।
এক টুইট বার্তায় মমতা লিখেছেন, আপনি সব সীমা পার করে গেছেন। আপনি একটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আর নরেন্দ্র মোদি দেশের প্রধানমন্ত্রী। কাল আপনাকে ওনার সঙ্গে কথা বলতে হতে পারে। মমতাকে হুঁশিয়ারি দিতে গিয়ে উর্দু কবি বশির বদরের লেখা দুটি লাইনের কথা উল্লেখ করেন তিনি।
যার বাংলা মানে হয়, শত্রুতা যত ইচ্ছা করুন। কিন্তু একটাই কথা, যদি কখনও বন্ধুত্ব করতে হয়, তখন যেন লজ্জায় পড়তে না হয়।
মঙ্গলবার বাঁকুড়ায় এক জনসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, নরেন্দ্র মোদি দেশের সবচেয়ে বড় দুর্যোগ। বাংলায় কতবার বন্যা হয়েছে, তবুও কোনদিন বাংলামুখো হননি তিনি। কোনওদিন তার টিকির খোঁজও পাওয়া যায়নি। আর এখন বসন্তের কোকিল হয়ে এসেছেন। ভোট চাইছেন। কেন ভোট দেবে?