মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে অন্যতম বড় এবং প্রথম সারির রাষ্ট্র। এই রাষ্ট্রটিতে বাস করে অনেক ধর্ম ও দেশের মানুষ। তবে এই দেশটিতে বরারবই মুসিলমদের নিয়ে বিশেষ আলোচনা সমালোচনা হয়ে থাকে। তবে এবার মুসলিম অধ্যুষিত দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশাধিকার বন্ধে যাতে কেউ ’বিশেষ নির্বাহী আদেশ’ জারি করতে না পারে, সে জন্য মার্কিন কংগ্রেসের নিুকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে একটি বিল পাস হয়েছে।
’নো ব্যান অ্যাক্ট’ বিলটি বৃহস্পতিবার প্রতিনিধি পরিষদে ২৩৩-১৮৩ ভোটে পাস হয়। এই বিলের অন্যতম উদ্যোক্তা ছিলেন নিউইয়র্কে বাংলাদেশিদের বন্ধু হিসেবে পরিচিত কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং।

কংগ্রেসের উচ্চকক্ষেও বিলটি পাস করার জন্য সিনেট সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এটি সিনেটেও পাস হলে পাঠানো হবে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বাক্ষরের জন্য। তবে তা সম্ভব হবে না বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

সে ক্ষেত্রে পুনরায় দুই-তৃতীয়াংশ ভোটে বিলটি পাস করতে হবে কংগ্রেসকে। তাহলেই ট্রাম্পের ভেটো অকার্যকর হয়ে বিলটি আইনে পরিণত হতে পারবে।

ট্রাম্প ২০১৭ সালের ২০ জানুয়ারি প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের কয়েক দিনের মধ্যেই ইরান, লিবিয়া, সোমালিয়া, সিরিয়া, ইয়েমেন, চাদ, উত্তর কোরিয়া, নাইজেরিয়া, সুদান, মিয়ানমার ও ভেনিজুয়েলার নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ নিষিদ্ধের নির্বাহী আদেশ জারি করেছিলেন।

সেই আদেশের বাস্তবায়ন ঝুলে রয়েছে আদালতের নির্দেশে।

এ দিকে বর্তমানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিরাজ করছে বেশ অস্থিরতা। একে তো করোনার দাপট তার পরে দেশের আভ্যন্তরীন বেশ কিছু বিষয় নিয়েও হয়ে গেছে অনেক তোলপাড়। বলতে গেলে যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান পরিস্থিতি বেশ নাজুক।