জন্ম, মৃত্যু, বিয়ে – এই তিন সত্যি নিয়ে মানুষের জীবন। সমাজে আবার মেয়েদের বিয়ের গুরুত্ব একটু বেশি। বিয়ে নিয়ে কল্পনার সাম্রাজ্য সাজান না, এমন নারী মেলা বিরল। কিন্তু কল্পনা আর বাস্তবে বিস্তর ফারাক। মানুষ ভাবে এক, হয় আরেক। বিয়ের দিন আসলে মেয়েরা ভাবেন কী?
চলুন আজ জেনে নেওয়া যাক, বিয়ের দিন বাঙ্গালী মেয়েরা কি নিয়ে ভাবেন-
উদ্বিগ্নঃ বিয়ের দিনে আনন্দর চেয়ে, মেয়েদের মনে টেনশনই বেশি থাকে। বরের গাড়ির ঠিক সময়ে আসবে তো? বরের সঙ্গে কে কে আসবে? বিয়ের সমস্ত অনুষ্ঠান ঠিকঠাক হবে তো? কোনও ঝামেলা হবে না তো? এই টেনশনেই পুরো দিনটা কেটে যায় বিয়ের কনের। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ঠিকঠাক মতই বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।
আত্মীয়-স্বজনের বিড়ম্বনাঃ বিয়ে মানেই আত্মীয়-স্বজনের উপস্থিতি। কাছের লোকেদের কথা আলাদা, কিন্তু এদিন এমন অনেক ’আত্মীয়’র আবির্ভাব হয় যাঁদের কোনদিন দেখাও যায় না। অথচ সব বিষয়ে তাঁদের অগাধ জ্ঞান। এই জ্ঞানের ঠেলায় অনেক সময়ই কনের মনে হয় পালিয়ে বাঁচলেই বেশ হত।
সাজসজ্জাঃ বিয়ের দিন কনেকেই সবচেয়ে বেশি সাজতে হয়। এই সাজ নিয়েই মেয়েরা দুশ্চিন্তায় ভোগেন। একটু বেশি হয়ে গেল না কি? খারাপ দেখতে লাগছে না তো? সবাই পছন্দ করবে তো? এই প্রশ্নই ঘুরপাক খেতে থাকে তাঁর মনে।
নিষ্কৃতিঃ সারা দিন সাউন্ড বক্সে সানাইয়ের সুর, লোকের আনাগোনা। অযাচিত কথাবার্তা, পরামর্শ কনেদের ভীষণ বিরক্ত করে তোলে। তখন মেয়েদের মনে হয় একটু নিরিবিলিতে গিয়ে নিজের মতো থাকতে পারলে ভাল হত। তাহলে হয়তো বিয়ের প্রকৃত অনুভূতিটা পাওয়া যেত।
ফুলশয্যাঃ তবে বিয়ের দিন মেয়েরা সবচেয়ে বেশি চিন্তিত থাকেন ফুলশয্যার রাত নিয়ে। বিশেষ করে যদি অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ হয়। এক প্রায় অচেনা পুরুষের সঙ্গে একঘরে থাকার অনুভূতি মনে অজানা ভয়ের সৃষ্টি করে। সূত্রঃ টাইম্‌স অফ ইন্ডিয়া।