বিচারে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করবেন না,বাড়ি ঘর ক্রোক করার আদেশ দেব:আদালত

সারা দেশটা ছেয়ে গেছে দুর্নিতীতে। আর দূর্নিতীর এই মহারনে সবাই করছে দুর্নিতীর প্রতিযোগিতা। আর এই সকল দূর্নিতী একে একে ধরা পরছে প্রশাসনের কাছে। বিশেষ করে দুদক এসব দূর্নিতী বাজদের ধরে আনছে আইনের আওতায়। তবে অনেক সময় দেখা যায় বড় বড় সব দূর্নিতীবাজরা বিচার ব্যবস্থার উপর প্রভাব খাটিয়ে পার পেয়ে যায়। Read more: বিচারে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করবেন না,বাড়ি ঘর ক্রোক করার আদেশ দেব:আদালত

যে দেশে ৫০ হাজার আইনজীবী কাতরাচ্ছেন,সেখানে বিচারপতির ছেলেকে সরাসরি প্রমোশন:ব্যরিষ্টার সুমন

বাংলাদেশে বর্তমান সময়ে আইনজীবী বা ব্যারিস্টার পেশাটা অনেক জনপ্রিয়। অনেকেই পড়াশোনা শেষ করে নিজেকে নিয়ে যাচ্ছেন আইনের জগতে কিন্তু বাংলাদেশের হাইকোর্টে এরকম প্রায় ৫০ হাজারের বেশি আইনজীবী আছে যারা এখনো রয়েছেন প্র্যাকটিসের ধারায়।তাদের নেই কোন প্রমোশন নেয়া হয় না ঠিকমত পরীক্ষাও। ঠিক এরই মাঝে একজন বিচারপতির সন্তানকে কোনরূপ পরীক্ষা ছাড়াই Read more: যে দেশে ৫০ হাজার আইনজীবী কাতরাচ্ছেন,সেখানে বিচারপতির ছেলেকে সরাসরি প্রমোশন:ব্যরিষ্টার সুমন

মামলার পাহাড় জমেছে উচ্চ আদালতে, ৯৯ বিচারপতির হাতে পাঁচ লাখ মামলা

হাইকোর্ট বিভাগ বা উচ্চ আদালত বিভাগ হল বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রীম কোর্টের নিম্ন বিভাগ (উচ্চ বিভাগ হল আপীল বিভাগ)। এ বিভাগ প্রধান বিচারপতি ও হাইকোর্ট বিভাগের অন্যান্য বিচারপতিদের নিয়ে গঠিত। হাইকোর্ট বিভাগ মূল বিচারকার্য পর্যালোচনার ক্ষমতা রাখে এবং দেওয়ানি ও ফৌজদারি উভয় বিষয়ে আপীল শুনানী করতে পারে। তবে বর্তমানে বাংলাদেশের Read more: মামলার পাহাড় জমেছে উচ্চ আদালতে, ৯৯ বিচারপতির হাতে পাঁচ লাখ মামলা

বিষয়টি আসলে কী হলো আমাকে কেউ কিছুই এ পর্যন্ত জানায়নি : তুরিন আফরোজ

ব্যরিষ্টার তুরিন আফরোজ। বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় একজন ব্যরিষ্টর বলে দির্ঘদিন ধরে পরিচিত ছিলেন তিনি। তবে সম্প্রতি তার বিরুদ্ধে গঠন হয় তিনটি অভিযোগ। আর এই অভিযোগ গঠনের ফলাফল হিসেবে আজ জানা যায় তাকে প্রসিকিউসর পদ থেকে অপসারন করা হয়েছে। সকাল থেকে সংবাদ মাধ্যমে ঘুরে বেড়াচ্ছে এমন সংবাদ। এবার এ নিয়ে নিজেই Read more: বিষয়টি আসলে কী হলো আমাকে কেউ কিছুই এ পর্যন্ত জানায়নি : তুরিন আফরোজ

ঘটনাটি যে পুলিশ অফিসার ঘটিয়েছে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত:অ্যাডভোকেট এ এম আমিন

২০১৪ সালে আবু সাঈদ নামের এক শিশুকে অপহরন করে এবং হত্যা করে। এই হত্যা মামলাটি করা হয় ২০১৪ সালের ১৫ এপ্রিল।এ খুনের মামলার বিচার চলছে ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৫–এ। রোববার (১ সেপ্টেম্বর) খুনের আসামি সোনিয়ার আইনজীবী ওয়াহিদুজ্জামান আদালতকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন, কিশোর আবু সাঈদ খুন হয়নি। সে ফিরে Read more: ঘটনাটি যে পুলিশ অফিসার ঘটিয়েছে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত:অ্যাডভোকেট এ এম আমিন