দীর্ঘ দুই বছর হয়ে গেলো বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কারাবাস জীবনের। আর এই দীর্ঘ সময়ে বিএনপি বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার জন্য চালিয়েছে নানা ধরনের কার্যক্রম। তবে হয়নি মুক্তির কোন পথ। আর খালেদা জিয়ার মুক্তি আদৌ হবে কি না তা জানে না দলটি। সম্প্রতি খালেদা জিয়াকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন বাংলাদেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব জনাব আসিফ নজরুল:-
খালেদা জিয়াকে ছাড়া হবে?

একটা হাসপাতালে গেছি সেদিন। লিফটে এক প্রবীণ ভদ্রলোকের সঙ্গে দেখা। কেন আর টক-শোতে আসিনা জানতে চাইলেন। কানের কাছে মুখ এনে ফিসফিস করে বললেন: আপনার কি মনে হয় বেগম জিয়াকে কি ছাড়বে এরা?
লিফটের ভেতর তিনি, তার স্ত্রী আর আমি ছাড়া আর কেউ নাই। কাজেই ফিসফিস করার কারণ নাই কোন।
তাকে স্পস্টগলায় বললাম, ছাড়বে।
বিস্ময়ে তার চোয়াল ঝুলে যায়। আমি বলি: বেগম জিয়ার যখন বাচার কোন আশা থাকবে না, তখন ছাড়বে, তখন বিদেশে পাঠাবে!
কি বলেন! উনি মারা গেলে!
মারা গেলে সরকার বলবে উনি নিজের দোষে মারা গেছেন। বলবে উনি ডাক্তারদের কথা শুনতেন না, ঔষুধ খেতেন না।
লিফট খুলে গেছে। হতবাক হয়ে তিনি নামলেন আমার পিছু পিছু। বললেন: আপনি শিউর ভালো কিছু হবে না।
মনে হয়না।
আমরা যাই উল্টোপথে। আমি ভাবি তিনি ভালো বলতে কি বুঝিয়েছেন। খালেদা জিয়ার মুক্তি? সুচিকিৎসা?
তার মতো করে কি ভাবে মানুষ ক্ষমতায় মত্ত থাকলে?




উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাষ্ট দুর্নিতী মামলায় দন্ডিত হয়ে গেলো ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারী আদালতের রায় অনুযায়ি কারাবাসে যান বেগম খালেদা জিয়া। এর পর থেকেই খালেদা রয়েছেন কারাগারে। এ দিকে পরিবার এবং দলের পক্ষ থেকে বার বার খালেদা জিয়ার অসুস্থার বিষয়টি নিয়ে গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। দলের পক্ষ থেক তার সুচিকিৎসার জন্য তাকে বার বার জামিনের আওতায় আনার কথা বলা হচ্ছে। তবে এ নিয়ে কোন ধরনের আশার আলো দেখেনি বিএনপি। বেশ কয়েকবার তার জামিনের শুনানির তারিখ পড়লেও কোন না কোন কারনে তা বাতিল হয়ে যায়।