বাংলাদেশে এখন শিক্ষা ব্যবস্থা সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। করোনার কারনে এখন বন্ধ রয়েছে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আর এই কারনে দেশে এখন সব ধরনের ক্লাশ অনলাইনে করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। কিন্তু দেশে অতিরিক্ত ইন্টারনেটের দামের কারনে তা সবাই করতে পারছে না। আর এই কারনে সরকারের পক্ষ থেকে এবার ভাবা হচ্ছে সেই বিষয়ে। এরই ধারাবাহিকতায় করোনা মহামারীর এই সংকটকালে শিক্ষার্থীদের জন্য ইন্টারনেট ব্যবহারে শিগগিরই সুখবর আসছে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। শনিবার (১১ জুলাই) বিকালে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকের টাইমলাইনে এক স্ট্যাটাসে তিনি এ তথ্য জানান।

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের দেওয়া স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো:

\"ছাত্র ছাত্রীদের ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য কিছু সুখবর আসবে বলে প্রত্যাশা করছি। অনেক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ছাত্রীদেরকে ইন্টারনেট দেবার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছে। আমরা আমাদের টেলিকম কোম্পানীগুলোকে সর্বনিম্ন হারে ইন্টারনেট দেবার জন্য অনুরোধ করছি। একই সাথে অপারেটরদেরকে তাদের বিটিএসগুলোকে ৪জি করারও নির্দেশ দিয়েছি। আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার গতি ত্বরান্বিত হোক এই কামনায়।\"



এ দিকে দেশে এখনো বেশ কয়েকটি একাডেমিক পরীক্ষা বন্ধ হয়ে আছে। বিশেষ করে সব থেকে বেশি জরূরী দেশের এবারের এইচ এস সি পরীক্ষা সেটিও এখনো নিতে পারেনি সরকার। যার ফলে শিক্ষা ব্যবস্থায় দেখা দিয়েছে একটি বিশাল ফাঁক। তবে শিক্ষামন্ত্রনলায় থেকে বলা হয়েছে সুযোগ বুঝে নেয়া হবে এসব পরীক্ষা।