বাংলাদেশে সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের জন্য সরকার থেকে বরাদ্দ করা হয়ে থাকে বাসা বাড়ি। এবং প্রত্যেক কর্মকর্তাদের সেই বাড়িতেই থাকার নির্দেশনা দেয়া হয় সরকার থেকে। কিন্তু তার পরেও দেখা যায় সরকারের দেয়া সেই সব বাড়িতে থাকতে চান না কর্মকর্তা কর্মচারীরা। এ নিয়ে সম্প্রতি পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সচিব আসাদুল ইসলাম বলেন, সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য নির্ধারিত বাসা রয়েছে। শিক্ষক, চিকিৎসকসহ অন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্যও বাসা বানানো হয়েছে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে তারা সেসব বাসায় থাকেন না। সরকারি বেতন বৃদ্ধির ফলে এখন যে বাসা ভাড়া পাওয়া যায়, সেটার চেয়ে কম পয়সায় বাইরে বাসা ভাড়া পাওয়া যায়। ফলে তারা বাইরে থাকেন। এ জন্য সরকারি টাকায় তৈরি বাসাগুলো অব্যবহৃত থাকে। নষ্ট হয়ে যায়।
সচিব বলেন, এজন্য একনেক সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন- যাদের নামে বাসা বরাদ্দ হবে, সেই বাসাগুলোতে তাদের থাকতেই হবে। যদি না থাকেন, তাহলে বাড়িভাড়া বাবদ তারা যে ভাতা পান, তা পাবেন না। এই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন।

মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় তিনি এই নির্দেশ দেন।

এ দিকে এই বিষয়টির উপর জোর দিয়ে এবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চটেছেন বেশ। তিনি একেবারেই সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যে সব কর্ম কর্তা কর্মচারীদের জন্য বাসা বাড়ি বরাদ্দ করা হয়েছে তারা যদি সে সব বাসায় না থাকে তবে সরকার থেকে দেয়া বাড়ি ভাড়া ভাতা আর দেয়া হবে না তাদের। এবং সে বিষয় তিনি অর্থ মন্ত্রনলায়ও এই নির্দেশনা জারি করে দিয়েছেন।