আজ বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ১০১ তম জন্মবর্ষিকী। আর এই উপলক্ষ্যে বাংলাদেশে এখন চলছে উৎসব মুখর আমেজ। আর সেই সাথে বাংলদেশে এই উৎসব মুখর পরিবেশে যোগ দিতে বাংলাদেশে আসছে বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশের রাষ্ট্র প্রধানেরা। তবে এর মধ্যে সব টুকু আলো নিয়ে নিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ঐতিহাসিক মুজিববর্ষে বাংলাদেশ সফর করতে পারাকে নিজের জন্য সম্মানের বিষয় বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বুধবার সকালে টুইটারে দেওয়া পোস্টে এমন মন্তব্য করেন তিনি।
টুইটে মোদি বলেন, ’মানবাধিকার ও স্বাধীনতার রক্ষক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকীতে তাঁর প্রতি আমার আন্তরিক শ্রদ্ধা। সকল ভারতীয় নাগরিকের কাছেও তিনি একজন বীর হিসেবে গণ্য হন। এই মাসের শেষের দিকে ঐতিহাসিক মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ সফর করতে পারা আমার জন্য সম্মানের বিষয়।’

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে আগামী ২৬-২৭ মার্চ বাংলাদেশ সফর করবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ সময় উভয় প্রধানমন্ত্রী একইসঙ্গে নিজ নিজ দেশের পক্ষে বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে পৃথক দুটি স্মারক ডাকটিকিট উন্মোচন করবেন।

মূলত মুজিববর্ষ উদযাপন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের যৌথ উদযাপন উপলক্ষে এই সফরে আসছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। সফরে ২৬ মার্চ বিকালে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ’গেস্ট অব অনার’ হিসেবে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তার বক্তব্য দেওয়ার কথা রয়েছে। এছাড়া সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ এবং গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদনসহ নানা কর্মসূচিতে অংশ নেবেন নরেন্দ্র মোদি।

একটি বছর ধরে বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে মুজিব বর্ষ। আর এই লক্ষ্যে সারা বছর ধরেই চলেছে নানা ধরনের আয়োজন। এ ছাড়াও এই বছর এক সাথে পালিত হবে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তি। যার ফলে আরো বেশি কর্মকান্ড হাতে নেয়া হয়েছে সরকারের তরফ থেকে।