বড় বড় সব রেস্তোরা গুলোতে খাওয়া-দাওয়া সেরে টিপস বা বকশিশ দেয়া একটা ট্রেন্ড হয়ে দাড়িয়েছে। নির্দিষ্ট পরিমান টাকার খাবার খাওয়ার পরে একটা অতিরিক্ত টাকার অংশ দেয়া হয়ে থাকে রেস্তোরার কর্মচারী বা বেয়ারাকে। তবে সম্প্রতি যে ঘটনা কাপাচ্ছে অনলাইনে তা সত্যিই বেশ বড় ধরনের একটি ঘটনা। রেস্তোরাঁয় খাওয়ার পর বিল হয়েছিল ২০৫ ডলার। কিন্তু এক ব্যক্তি মহিলা ওয়েটারকে বকশিশ হিসেবে দিয়েছেন ৫ হাজার ডলার। অর্থাৎ ১৬ হাজার টাকার বিলে ওই ব্যক্তি বকশিশ দিয়েছেন সাড়ে ৩ লাখ টাকারও বেশি। আমেরিকার এক রেস্তোরাঁয় এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আসতেই ওই ব্যক্তির প্রশংসা করেছেন অনেকেই।
প্যাক্সন রেস্তোরাঁ আমেরিকার পেনসিলভেনিয়ার অ্যান্থনিতে অবস্থিত। ওই রেস্তোরাঁতে ওয়েটারের কাজ করেন গিয়ানা ডিঅ্যাঞ্জেলো। এখানে কাজ করার পাশাপাশি চেস্টারের উইডেনার বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনাও করেন তিনি। ওই ব্যক্তির থেকে এই পরিমাণ বকশিশ পেয়ে খুশি গিয়ানা। বলেন, ’সবাই খুশি হয়ে যা দেয় তাই আমি নেই। কিন্তু এত টাকা বকশিশের ব্যাপারটি অবিশ্বাস্য।’ এই টাকা দিয়ে কলেজের বাকি ফি মেটানোর পাশাপাশি, ভালো কাজে ব্যবহার করবেন বলে জানান তিনি।

সারা বিশ্ব করোনার কারনে একেবারেই স্থবির হয়ে গিয়েছিল। যার ফলে বন্ধ ছিল বিশ্বের সব দোকান পাট। আর সেই সাথে বন্ধ ছিল রেস্তোরা গুলোও। ঠিক সেই সময়ে বকশিশের মাধ্যমে ঐ রেস্তোরার বেয়ারার পাশে দাড়ানোর জন্য সকলেই সাধুবাদ জানিয়েছেন তাকে।