মিডিয়া প্রতিটা দেশের একটি গুরুত্বপূর্ন বিষয়। কারন এই মিডিয়ার মাধ্যমেই প্রতিটি দেশের মধ্যে রক্ষা পেয়ে থাকে দেশের নানা ধরনের সব বিষয়। কিন্তু এই মিডিয়ার সামনেই অনেকেই হিরো সাজতে গিয়ে বাধিয়ে ফেলেন নানা ধরনের সব গোলমাল। আর এ সব নিয়েই সম্প্রতি একটি বিশেষ লেখনি লিখেছেন দেশের প্রধানমন্ত্রীর সাবেক উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন। পাঠকদের উদ্দেশ্যে তার সেই লেখনি তুলে ধরা হলো হুবহু:-
অতি কথন খুব খারাপ বিষয়। কোনটা বলা যাবে কোনটা বলা যাবেনা এই বিষয়টি বুঝতে পারায় যোগ্যতার বিষয়। এখানে মেধা,শিক্ষাগত যোগ্যতার বা পদ পদবীর চেয়ে "কমন সেন্স" বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

মিডিয়া দেখলে অনেক বুদ্ধিমানও গর্দভ হয়ে যায়। কারণ একটাই, মিডিয়াতে হিরো হওয়া বা জাতিকে চেহারা দেখানোর সুযোগ অনেকেই হাতছাড়া করতে চান না। আর এই গর্ধভি হিরোইজম করতে গিয়ে জাতির কিংবা দলের বারোটা বাজে।

প্রথমত: মিডিয়াতে সব কিছু বলতে আপনি বাধ্য না। আর সব কিছু জাতির জানারও দরকার নাই। রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ এমন অনেক কিছুই থাকে যা প্রকাশিত হলে ক্ষতিকর হবে। জাতির ক্ষতি কেউই চাওয়া উচিত না। করোনার যে টিকা চীন শ্রীলংকাকে দিয়েছে ১৫ ডলারে বাংলাদেশেকে তা দিয়েছিল ১০ ডলারে। শর্ত ছিল দামের বিষয়টি বাংলাদেশ প্রকাশ করতে পারবে না। এই শর্ত আমরা রক্ষা করতে পারিনি, শুধু বাচালতার কারণে।

যখন অনেক উন্নত প্রভাবশালী দেশ টিকা পায়নি, তখন ভারত থেকে সেরামের টিকা পেয়েছিলো বাংলাদেশের মানুষ। চীনের সাথে দরদামে জিতে যাওয়াটাও ছিল বাংলাদেশের আরেকটি সফলতা। কিন্তু এই সফলতা ম্লান হয়ে গেলো এই হেরোইজম প্রীতির কারণে। একজন কর্মকর্তা হিরো সাজতে গিয়ে মিডিয়াতে দাম বলে দিলেন।

আশরাফুল আলম খোকন দীর্ঘদিন ধরেই জড়িত রয়েছেন বাংলাদেশের বড় ও বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সাথে। তিনি করেছেন ছাত্রলীগও। একটা পর্যায়ে এসে যোগদান করেন প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব হিসেবে। তবে গেল বেশ কিছু মাস আগে পড়া শুনা করার উদ্দেশ্যে সেই দায়িত্ব থেকে নিজেই অব্যাহতি দিয়ে পাড়ি জমান যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানেই তিনি রয়েছেন বর্তমানে।