আত্মহত্যা করতে চেয়েও এই তারকারা বেঁচে আছেন – নানান গবেষণা হয়েছে আত্মহত্যার প্রবণতা থেকে মানুষকে রক্ষা করার জন্য। কিন্তু এর প্রবণতা কমেনি। কারণ আসলে এটা নির্ভর করে যার যার মানসিক শক্তির উপরে। কেন আপনি আত্মহত্যা করবেন? এমন কঠিন প্রশ্নের উত্তরে আসলে কোন গবেষণাই কাজে দেয়নি। যদি দিত তাহলে ঠিকই বন্ধ করা সম্ভব হতো আত্মহত্যা। কিন্তু সেটি হয়নি বরং বেড়েছে। কোন ধরনের মানসিক চাপ, রাগ, অভিমান থেকেই আসলে এখন আত্মহত্যার প্রবণতা দিনকে দিন বাড়ছে। সাধারণ মানুষের মতোই দিনে দিনে মিডিয়াতে বাড়ছে আত্মহত্যাকারির সংখ্যা। এ বছরই আত্মহত্যা করে মারা গিয়েছেন মডেল, অভিনেত্রী এবং কণ্ঠশিল্পী।
জীবনের প্রতি অনিহা চলে আসায় অতীতেও অনেক মডেল ও অভিনেত্রী আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন। তবে এই আত্মহত্যার চেষ্টা করে কিন্তু অনেকেই বেঁচে ফিরেছেন। তাদের মধ্যে আছেন অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম, কণ্ঠশিল্পী সালমা, অভিনেত্রী সায়লা সাবি, কণ্ঠশিল্পী ন্যান্সি। আর এদের আত্মহত্যা চেষ্টা করার খবরে সারাদেশেই হইচই রটে গিয়েছিল। বিশেষ করে তাদের ভক্তকুলও কিন্তু বেশ মন খারাপ করে বসে ছিলেন। তাদের ভাবিয়েছিল বটে- কেন তারা আত্মহত্যা করতে চাচ্ছেন? সেই প্রশ্নের উত্তর আসলে যারা আত্মহত্যা করে বেঁচে গিয়েছেন তারাই দিতে পারবেন। কিন্তু এ বিষয়ে আসলে আর কথা না বাড়ানোই শ্রেয়।
আত্মহত্যার চেষ্টা থেকে বেঁচে এসে কিন্তু এখন তারা দিব্যি অভিনয় করছেন নিয়মিত। আবার কেউবা গান করছেন সুরেলা কণ্ঠে। আত্মহত্যাই যে সঠিক পথ নয় তা হয়তো তাদের সবারই জানা হয়ে গিয়েছে। উক্ত অভিনয় শিল্পী ও কণ্ঠশিল্পীরা তো আত্মহত্যার চেষ্টা করে গিয়েছেন হাসপাতালও। কিন্তু অভিনেত্রী সারিকা, শবনম ফারিয়া জান্নাতুল পিয়া, ফারিয়া শাহরিন- এরা হাসপাতাল পর্যন্ত না গেলেও আত্মহত্যার খবরে যখন চারদিকের পত্রিকা গুলো চাঙা, তখন কিন্তু তারা ফেসবুকে স্বীকার করেছেন যে একসময় তারাও চেষ্টা করেছিলেন আত্মহত্যার।
কিন্তু অনেকেই আবার গুজব বলেই উড়িয়েও দিয়েছিলেন। যারা ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বলেছিলেন আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন নানা মানসিক কারণে, তারাই পরে বলেছেন ব্যাপারটি ভাবলে অনেক হাসি পায় তাদের। জীবন কতটা সুন্দর তখন তারা বুঝতে পারেননি। তাই পাঠক আসুন জীবনের নানা সমস্যা মোকাবেলা করে আমরা বেঁচে থাকি আমাদেরই কারণে। আত্মহত্যা নয়, বেঁচে থেকেই সবাই যুদ্ধ করুণ প্রতিদিন নিজের সঙ্গে। কারণ যুদ্ধ করে বেঁচে থাকার নামই তো জীবন। আসুন আর নয় আত্মহত্যা, বেঁচে থাকি মুক্ত মনে। আর ভাবুন শতবার, লালনের সুরে- এ মানব জীবন আর পাবো কি?