নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার কে নিয়ে প্রায় সময় বেশ আলোচনা হয়ে থাকে। এই সম্মানিত ব্যক্তি প্রায় সময় দেশের নির্বাচন সহ নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে কথা বলে থাকেন। যার কারণে তাকে নিয়ে দেশের অনেক রাজনৈতিক ব্যক্তি সহ সাধারণ মানুষ কথা বলে থাকেন। এই সম্মানিত ব্যক্তি গতকাল বুধবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে বেশ কিছু বিষয়ে কথা বলেন। কথা বলতে বলতে একটা সময় তিনি কেঁদে দেন।


জাতীয় পরিচয়পত্র বা এনআইডি অনুবিভাগ জনবলসহ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে স্থানান্তরের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ যে নির্দেশ জারি করেছে তা নির্বাচনের ক’’ফি’’নে শেষ পে’’রে’’ক বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার।

বুধবার (২ জুন) বিকেল ৩টায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। লিখিত বক্তব্য পাঠ করতে এসে কেঁদে কেঁদে মাহবুব তালুকদার বলেন, কী উদ্দেশ্যে এই আ’’ত্ম’’ঘা’’তী ও অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তা আমার বোধগম্য নয়। এটি সংবিধানের ১১৯ ধারার পরিপন্থী।

এনআইডি কার্যক্রম স্থানান্তরের বিষয়ে ইসির এ জ্যেষ্ঠ কমিশনার বলেন, এনআইডির বিদ্যমান অবকাঠামো ও জনবল সুরক্ষা সেবা বিভাগে হস্তান্তর করার ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানকে এ ধরনের নির্দেশ প্রদান কতটা যৌক্তিক তা বিবেচ্য। ভোটারের তালিকা ও জাতীয় পরিচয়পত্র একটি অপরটির সঙ্গে জড়িত। ফলে নির্ভুল ভোটার তালিকা প্রণয়ন ও জাতীয় পরিচয়পত্রের ডাটাবেজ নির্ভর ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণে জটিলতা সৃষ্টি হবে। এটি করা হলে সংবিধানের ১১৯ ধারা অনুযায়ী নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব পালন সম্ভব হবে না।
মাহবুব তালুকদার বলেন, এ বিষয়ে কমিশনকে না জানানো নির্বাচন কমিশনের প্রতি অবজ্ঞা প্রকাশের সামিল। নির্বাচন কমিশনের ইতিহাসে এ যাবৎকালে এমন ঘোরতর দুর্দিন আর আসেনি। সংবিধানের ১০৮ (৪) ধারায় বলা হয়েছে- ’নির্বাচন কমিশন দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে স্বাধীন থাকিবেন এবং কেবল এই সংবিধান ও আইনের অধীন হইবেন’। এটি কমিশনের জন্য রক্ষাকবচ হলেও নির্বাচন কমিশনের স্বাধীনতা এখন কোথায়? আমি আ’শ’ঙ্কা করি জাতীয় পরিচয়পত্র অনুবিভাগ অন্যত্র স্থানান্তর সামগ্রিক নির্বাচনী ব্যবস্থাপনার অন্তিমযাত্রার আয়োজন। সূত্র:ইত্তেফাক

উল্লেখ্য, গত কয়েক বছর ধরে দেশের জাতীয় নির্বাচন সহ স্থানীয় নির্বাচন নিয়ে নানা রকম আলোচনা চলছে। এমনকি দেশে বড় বড় রাজনৈতিক দলের নেতারাও নির্বাচন নিয়ে নানা রকম প্রশ্ন তুলছেন। তবে এই নির্বাচন ব্যবস্থা নিয়ে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার প্রায় সময় নানা রকম কথা বলে তিনি আলোচনায় এসেছেন। তেমনি গতকাল তিনি সাংবাদিকদের সামনে এই সকল বক্তব্য দিয়েছেন।